Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

পর্যটন শহর কক্সবাজারের গৌরবময় ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখা এবং সংস্কৃতির চ্চর্চার মান উন্নয়ন লালন, পরিচর্যার মাধ্যমে গতিশীল করার প্রচেষ্ঠায় কক্সবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমী কর্তৃক বিভিন্ন বিষয়ে জাতীয়ভাবে প্রশিক্ষণ কর্মশালা স্থানীয়ভাবে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিচালনা এবং অনুষ্ঠানমালার আয়োজনের মাধ্যমে নিম্নবর্ণিতভাবে জনসেবামূলক কাজ করে চলছে।

জেলা শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননাঃ প্রতি বছর ৫জন গুণী সাংস্কৃতিক ব্যক্তিকে জেলা শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননা প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

১৩ ফেব্রুয়ারিঃ বসন্ত উৎসব উদযাপন উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

১৯ ফেব্রুয়ারিঃ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

২১ ফেব্রুয়ারি : শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন। এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসন ও জেলা শিল্পকলা একাডেমীর ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

১৭ মার্চ : স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতীরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম দিবস ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করা হয়।

২৬ মার্চ : স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন। এ উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসন ও জেলা শিল্পকলা একাডেমী কর্তৃক বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

২৭ মার্চ : বিশ্ব নাট্য দিবস উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী, আলোচনা সভা ও পথ নাটক মঞ্চায়ন করা হয়।

বৈশাখ, ১৪ এপ্রিল : বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

২৯ এপ্রিলঃ আন্তর্জাতিক নৃত্য দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

২৫ বৈশাখ মে : বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

১১ জৈষ্ঠ্য ২৭ মেঃ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের  জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

২১ জুনঃ বিশ্ব সংগীত দিবস উপলক্ষে প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

১৫ আগষ্ট : জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

১৬ ডিসেম্বর : মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

†     

এ ছাড়াও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের উদ্যোগে জেলা প্রশাসন, কক্সবাজার কর্তৃক সপ্তাহ ব্যাপী বই মেলা আয়োজন করা হয়।  বইমেলায় বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির ৪০ টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেন। উক্ত বইমেলা উপলক্ষে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করে।

বাংলাদেশে টেলিভিশন এবং বিভিন্ন টিভি চ্যানেলসহ বেতারে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর ছাত্র/ছাত্রীরা কক্সবাজার অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড তুলে ধরে।

একাডেমী আয়োজিত জাতীয় অনুষ্ঠানসমূহ সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত এবং সকলেই উপভোগ করতে পারেন।

জেলার সাংস্কৃতিক সংগঠন, শিল্পী কলা কুশলীদের নাম ঠিকানাসহ বিভিন্ন তথ্য একাডেমীতে সংরক্ষণ করা হয়। নতুন শিল্পী সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিভা অন্বেষণ এবং উৎসাহ প্রদানের লক্ষে সঙ্গীত, নৃত্য, আবৃত্তি, চারুকলা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

 

জেলা শিল্পকলা একাডেমী, কক্সবাজার কর্তৃক পরিচালিত প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের বিবরণ

জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রঃ

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী প্রণীত সিলেবাস অনুযায়ী সঙ্গীত, নৃত্য, তালযন্ত্র, চারুকলা,আবৃত্তি ও গিটার বিষয়ে প্রতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টা থেকে ৫টা এবং শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে ১২টা পর্যন্ত প্রশিক্ষণ প্রদানের ব্যবস্থা রয়েছে।

প্রশিক্ষণের বিষয়ঃ

১। সঙ্গীত         : সাধারণ সঙ্গীত, উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত।

২। নৃত্য            : সাধারণ নৃত্য, উচ্চাঙ্গ নৃত্য।

৩। তবলা

৪। চারুকলা

৫। আবৃত্তি

৬। গিটার

†         ৪ (চার) বৎসর মেয়াদী কোর্সে স্বল্প ব্যয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রশিক্ষণ কোর্স শেষে সনদ দেয়া হয়।

†         প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনায় ৮ জন অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক ও ২জন তালবাদ্যযন্ত্র সহকারী দায়িত্ব পালন করে থাকেন।